2021-এ ভারতবর্ষে আপনি ক্রয় এবং হোল্ড করার জন্য উত্তম 12টি ক্রিপ্টোকারেন্সি (12 cryptocurrencies you should buy and hold in India 2021)

By ডিসেম্বর 20, 2021ডিসেম্বর 22nd, 20214 minute read
2021-এ ভারতবর্ষে আপনি ক্রয় এবং হোল্ড করার জন্য উত্তম 12টি ক্রিপ্টোকারেন্সি (12 cryptocurrencies you should buy and hold in India 2021)

অ্যাপল, গুগল, টেসলা, স্যামসাং, ফেসবুক-এর মতো অনেক সুপরিচিত কোম্পানি ক্রিপ্টোকারেন্সিকে তাদের পরিকল্পনার মধ্যে রেখেছে। 23 জুন 2021 অবধি, বিশ্ব ক্রিপ্টো বাজারের মূলধন এবং আয়তন হল $1.3T। প্রায় 10 মিলিয়ন ভারতবাসীর ক্রিপ্টোতে বিনিয়োগের সাথে সাথে, ভারতবর্ষেও ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজার বিস্ফোরিত হয়েছে।

অনেক লোকের জন্য এই ডিজিটাল কয়েন দীর্ঘ -কালীন সঞ্চয়ের পথ হয়ে উঠেছে। নতুন বিনিয়োগকারীরা ভাবছেন ভারতবর্ষে কীভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সি ক্রয় করা যায়। যেসকল লোক ভাবছেন যে ক্রিপ্টোকারেন্সি ভবিষ্যতের অর্থ হতে চলেছে এবং এই পদ্ধতিতে উচ্চ আয় অর্জন করতে চাইছেন, তাদের জন্য এই হল বারোটি ক্রিপ্টোকারেন্সি যা তারা তাদের অর্থনৈতিক পোর্টফোলিওতে যুক্ত করতে পারেন।

Digital Coins

1. বিটকয়েনBitcoin (BTC)

বিটকয়েন, হল ক্রিপ্টোকারেন্সি বাজারের প্রথম কয়েন, যা 2008 সালে তৈরি হয়েছিল। বাজারের মূলধনের উপর ভিত্তি করে এটি হল সবথেকে বিশিষ্ট ক্রিপ্টোকারেন্সি। এই বিকেন্দ্রীভূত ডিজিটাল মুদ্রা পিয়ার-টু-পিয়ার বিটকয়েন নেটওয়ার্কের মাধ্যমে এক ব্যাবহারকারী থেকে অন্য ব্যাবহারকারীকে পাঠানো যায়। ব্লকচেইন প্রযুক্তি দ্বারা চালিত, এই ক্রিপ্টোকারেন্সি মূল্যের ওঠা ও নামা দুটোই দিক দেখেছে এবং এখন পর্যন্ত বাজারে আধিপত্য বিস্তার করে রেখেছে। বিটকয়েনের উচ্চ তারল্যতা বাজারের পরিস্থিতি নির্বিশেষে এটির সময়কালে ট্রেডারদের সুবিধা প্রদান করবে। WazirX-এর মাধ্যমে ভারতবর্ষে কীভাবে বিটকয়েন কিনবেন সেই সম্বন্ধে জানুন। 

2. ইথেরিয়ামEthereum (ETH)

ইথেরিয়ামের বিকেন্দ্রীভূত সফ্টটওয়্যার প্ল্যাটফর্ম স্মার্ট কন্ট্র্যাক্ট ও বিকেন্দ্রীভূত অ্যাপ্লিকেশনকে ডিজাইন এবং কোনো তৃতীয়-পক্ষীয় হস্তক্ষেপ ছাড়া কার্যকরী থাকতে সক্ষম করে। ইথেরিয়াম বিস্তৃতরূপে নন -ফাঞ্জিবেল টোকেন তৈরি ও লেনদেন এবং প্রারম্ভিক কয়েন প্রদানের জন্যও ব্যাবহৃত হয়। ইথেরিয়ামের শীর্ষস্থানীয় ডেভেলপার, ভিটালিক বুটেরিন, 2013 সালে এটি লঞ্চ করেছিলেন। এটি তাকে ক্রিটোকারেন্সির বাজারে সবথেকে কম বয়সী বিলিয়নেয়ার করেছিল। বিটকয়েনের পরে, বাজারের মূলধনের উপর ভিত্তি করে ইথেরিয়াম দ্বিতীয়-বৃহত্তম ক্রিপ্টোকারেন্সি। 

3. লাইটকয়েনLitecoin (LTC)

লাইটকয়েন 2011 সালে লঞ্চ হয়েছিল। এটি বিটকয়েন পরবর্তী ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলির মধ্যে অন্যতম। এটি প্রায়শই বিটকয়েনের সোনায় রূপা হিসাবে উল্লেখ করা হয়, এটি MIT স্নাতক এবং পূর্ব ইঞ্জিনিয়ার চার্লি লি দ্বারা তৈরি করা হয়েছিল। যদিও অনেক ক্ষেত্রে লাইটকয়েন-এর বিটকয়েনের সাথে সাদৃশ্য রয়েছে, এটির ব্লক তৈরির হার অনেক দ্রুত যা কম সময়ে লেনদেন নিশ্চিতকরণ প্রদান করে। লাইটকয়েনকে অর্থপ্রদানের মাধ্যম হিসাবে গ্রহণ করা ব্যবসায়ীর সংখ্যা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে।

4. কারডানোCardano (ADA)

স্মার্ট কন্ট্র্যাক্টের জন্য চার্লস হোসকিনসন ইথেরিয়ামের সাথে সাদৃশ্যযুক্ত এই ক্রিপ্টোকারেন্সি নেটওয়ার্কটি তৈরি করেছিলেন। তিনি ইথেরিয়ামের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ছিলেন যিনি কারডানো তৈরি করার জন্য ইথেরিয়াম ছেড়েছিলেন। 2017-এ স্থাপিত, ADA হল অ-লাভজনক ডিজিটাল মুদ্রা, যা ওরোবোরোস প্রযুক্তি দিয়ে চালিত।

5. পোল্কাডটPolkadot (DOT)

আরও একজন ইথেরিয়ামের সহ-প্রতিষ্ঠাতা, গ্যাভিন উড, রবার্ট হ্যাবারমেয়ার এবং পিটার জাবন-এর সাথে একত্রিত হয়ে পোল্কাডট তৈরি করেছেন। এটি তৈরি করার প্রধান লক্ষ্য হল পোল্কাডট নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিকেন্দ্রীভূত অ্যাপ, ইউটিলিটি এবং সংস্থা সংযুক্ত করা। তাছাড়াও, ব্যবহারকারীর চুড়ান্ত নিয়ন্ত্রণের জন্য তাদের ওয়েবসাইটের ডেটা এবং পরিচয়ের সুরক্ষা নিশ্চিত করে।

6. রিপলRipple (XRP)

2012 সালে স্থাপিত, রিপল হল একটি ক্রিপ্টোকারেন্সি, পেমেন্ট এক্সচেঞ্জ সিস্টেম, এবং রিপলনেট নামের একটি নেটওয়ার্ক। এটি ডিজিটাল উপায়ে অর্থ প্রদানের জন্য তৈরি করা হয়েছে, এবং তারা দ্রুত ও দক্ষ উপায়ে সারা বিশ্বে অর্থ পরিশোধ নিশ্চিত করে। তারা XRP-এর অন্য ব্যবহারের জন্য তৃতীয় পক্ষীয় উন্নয়নের সম্মতিও দেয়। আপনি যদি আরও কিছু জানতে চান, এবং সম্ভাব্যরূপে রিপল-এ বিনিয়োগ করতে চান, তাহলে আপনি কীভাবে রিপল কিনবেন তার ব্লগ পড়তে পারেন।

7. ইউনিসোয়াপUniswap (UNI)

স্মার্ট কন্ট্র্যাক্টের দ্বারা, ইউনিসোয়াপ-এর প্রোটোকল ইথেরিয়াম ব্লকচেইনে ক্রিপ্টোকারেন্সির মধ্যে স্বয়ংক্রিয় লেনদেন সক্ষম করে। তাছাড়াও, এটির ডেভেলপার বর্ধিত ব্যবহারকারীর নিয়ন্ত্রণের জন্য অপ্রয়োজনীয় মধ্যস্থতাকারী থেকে মুক্তির প্রতিশ্রুতি দেয়। 

8. ডোজ কয়েনDogecoin (DOGE)

বিলি মার্কাস এবং জ্যাকসন পালমার, এই দুই সফটওয়্যার প্রোগ্রামার, ক্রিপ্টোকারেন্সির জল্পনা নিয়ে মজা করতে চেয়েছিলেন। সেইজন্যই, তারা এই মিম ক্রিপ্টোকারেন্সিটি তৈরি করেছিলেন। যদিও এটি ব্যঙ্গাত্মক রূপে তৈরি হয়েছিল, কিন্তু এটি বিনিয়োগের জন্য যোগ্য টোকেন। তাছাড়া, আপনি ডোজকয়েন কী এবং ভারতবর্ষে কীভাবে ডোজকয়েন ক্রয় করবেন সেই সম্বন্ধে এই ব্লগটি পড়তে পারেন

9. বাইন্যান্স কয়েনBinance Coin (BNB)

বাইন্যান্স কয়েন ইথেরিয়াম প্রযুক্তি দিয়ে চালিত। BNB টোকেন বিশ্বের সবথেকে বড় ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ বিন্যান্স দ্বারা লঞ্চ করা হয়েছিল। এটি বাইন্যান্স এক্সচেঞ্জে অর্থ প্রদানের জন্য ডিসকাউন্ট টোকেন হিসাবে অথবা বাইন্যান্স স্মার্ট চেইন-এর জ্বালানি রূপেও ব্যবহার করা যায়।

10. WazirX কয়েন – WazirX Coin (WRX)

WazirX-এর ইউটিলিটি টোকেনকে বলা হয় WRX। 1 বিলিয়ন WRX টোকেনের সঞ্চালনের জন্য, বাইন্যান্স চেইন (বিন্যান্স ব্লকচেইন) ব্যবহার করা হয়। WazirX কয়েন ক্রয় করার মাধ্যমে, ব্যবহারকারী WazirX গঠন করতে সাহায্য করবেন এবং সেইসাথে অনেক পুরষ্কারও পাবেন। তাছাড়াও, WRX কয়েনের প্রাথমিক গ্রহণকারীদের ইনসেনটিভ যেমন ফি হ্রাস করা এবং আরও অনেক সুবিধা প্রদান করে।

11. বিটকয়েন ক্যাশBitcoin Cash (BCH)

অল্টকয়েনের ইতিহাসে বিটকয়েন ক্যাশ -এর একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান রয়েছে; BCH আগস্ট 2017-তে বিটকয়েনের প্রধান চেইন থেকে আলাদা করার জন্য স্থাপন করা হয়েছিল। যেহেতু ব্লকে বিটকয়েন নেটওয়ার্কের আকারের সীমা 1 মেগাবাইট (MB), সেই আকার 1 MB থেকে 8 MB বৃদ্ধি করার জন্য BCH হার্ড-ফর্ক বাস্তবায়িত করা হয়েছিল, যা ব্লকগুলিকে তাদের মধ্যে আরও বেশী লেনদেন ধারণ করতে সক্ষম করবে। এটি লেনদেনের গতিও বৃদ্ধি করবে।

12.   স্টেলারStellar (XLM)

স্টেলার জেড ম্যাকলেব দ্বারা স্থাপিত, যিনি রিপল প্রোটোকলের একজন ডেভেলপার ছিলেন। বড় লেনদেনের ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠাগুলিকে সংযুক্ত করার জন্য ওপেন ব্লকচেইন নেটওয়ার্ক দ্বারা ডিজাইন করা এন্টারপ্রাইজ সমাধান। এই পদ্ধতি যেকোনো মুদ্রায় আন্তঃসীমান্ত লেনদেন সক্ষম করে। স্টেলার মুদ্রাকে লিউমেন্স (XLM) বলা হয়।

আপনি কেন WazirX-কে বেছে নেওয়া উচিত?

 WazirX হল ভারতের ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ, যা আপনাকে বিভিন্ন ক্রিপ্টোকারেন্সি যেমন বিটকয়েন, ইথেরিয়াম, রিপল, লাইটকয়েন, প্রভৃতিতে ক্রয়, বিক্রয় এবং ট্রেড করতে সক্ষম করে। এই প্ল্যাটফর্মটি আমাদের ওয়েবসাইটে, গুগল প্লে স্টোরে, অ্যাপল অ্যাপ স্টোরে, উইন্ডোজ, এবং ম্যাক OS দ্বারা আক্সেসযোগ্য। WazirX খুবই সুরক্ষিত, দ্রুত KYC প্রক্রিয়া, স্বল্প সময়ে লেনদেন, সহজ এবং ব্যবহারিক ডিজাইন, দারুণ গ্রাহক পরিষেবা, এবং আরও অনেক বৈশিষ্ট্য সমৃদ্ধ। সেইজন্য আপনি যদি একজন নতুন বিনিয়োগকারী হন অথবা অভিজ্ঞ ট্রেডার হন, তাহলে WazirX আপনার জন্য উপযুক্ত!



আপনি ভারতবর্ষে কীভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সি ক্রয় করবেন অথবা INR-এ ট্রেড করবেন, সেই সম্বন্ধে WazirX-এর ব্লগগুলি পড়তে পারেন 

দাবিত্যাগ: ক্রিপ্টোকারেন্সি আইনি দরপত্র নয় এবং বর্তমানে এটি অনিয়ন্ত্রিত। আপনি অবশ্যই ক্রিপ্টোকারেন্সিতে ট্রেডিং করার পূর্বে অনুগ্রহ করে যথেষ্ট ঝুঁকির মূল্যায়ণ করেছেন কারণ এটি প্রায়শই উচ্চ মূল্যের অস্থিরতার বিষয়। এই বিভাগে প্রদত্ত তথ্য কোনো বিনিয়োগের উপদেশ অথবা WazirX-এর নিজস্ব উপদেশ নয়। WazirX কোনো অগ্রিম সূচনা ছাড়াই যেকোনো কারণের জন্য এবং যেকোনো সময়ে এই ব্লগ পোস্টটি সংশোধন এবং পরিবর্তন করার অধিকার রাখে।

Leave a Reply